Logo

অবৈধ মার্কেট প্রসঙ্গে এনাম মেম্বারের প্রতিবাদ ও ব্যাখা

গতকাল অনলাইন নিউজ বার্তা বাজার পত্রিকায় আমি অন্যের জমি দখল করে মার্কেট নির্মাণ করেছি প্রসঙ্গে নিউজ পড়ে সামান্যতম বিচলিত ও নিন্দনীয় অনুভব করছি।
টেকনাফ এর ইয়াবা খ্যাত ও খুনি পরিবারের হাস্যকর অভিযোগের আমার সো স্পষ্ট জবাব।
বিএস খতিয়ান চুড়ান্ত ১৭২৬৯/ তফসিলের প্রকৃত মালিক ছৈয়দ আলম গং গফুর আলম দ্বয়ের কাছ থেকে সৃজিত খতিয়ান মূলে ২০১৪/সালে ২৫/শতক জমি আমার নামে ক্রয় করি।
সেই জমিতে ইয়াবা ছিদ্দিক গংরা জোরপূর্বক দখল করতে প্রচেষ্টা চালানোর সময় আমার ভাই শহীদ আজিজুল হক ও হাফেজ নুরুল হক মৌখিক ভাবে নিষেধ করতে গেলে ইয়াবা ছিদ্দিক ও তার লালিত সন্ত্রাসীরা আমার ভাই হাফেজ নুরুল হক ও শহীদ আজিজুল হক ভাইকে দিনদুপুরে প্রকাশ্যে কুপিয়ে ও গুলি করলে শহীদ আজিজুল হক মৃত্যুর কূলে আঁচড়ে পরে এবং হাফেজ নুরুল হক ভাই আল্লাহর রহমতে বেঁচে যায়।
বর্তমানে ওনিও তাদের বুলেটের আগাতে পঙ্গুত্ব জীবন অতিবাহিত করে দিনাতিপাত করছে।
২০১৮/সালে আমার ক্রয় কৃত দলিল ও সৃজিত খতিয়ান মূলে আমার শহীদ ভাইয়ের নাম স্মরণীয় রেখে উক্ত জমিতে শহীদ আজিজুল হক বালিকা মাদ্রাসা প্রতিষ্ঠিত করেছি আল্লাহর রহমতে আমার ৮নং ওয়ার্ডে সেই স্মৃতিবিজড়িত মাদ্রাসা শিক্ষার আলো চড়াচ্ছে।
২০১৯/সালে আমি ২৫শতক জমি মাদ্রাসা বরাবরে যথানিয়মে লিখিত দানপত্র দালিলিক কাগজ মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষের কাছে স্থানান্তর করেছি।
কিন্তু আলাদীনের চেরাগ পাওয়ার খুনি পরিবারের ষড়যন্ত্র থেমে রাখেনি।
১৮/সালে মাননীয় আদালতে গিয়ে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করলে মাননীয় আদালত কর্তৃক সরেজমিন তদন্ত আদেশ প্রদান করেন।
যথাযথ কর্তৃপক্ষ তদন্ত সাপেক্ষ আদালতে উপস্থাপন করলে।
মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষকে পরবর্তী তারিখ আদালতে উপস্থিত থাকতে আরেকটি আদেশ প্রেরণ করেন।
যথানির্দিষ্ট টাইমে মাদ্রাসা কর্তৃপক্ষ আদালতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র উপস্থাপন করে।
মাননীয় আদালত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিবেচনা করে ও দালিলিক কাগজ পর্যালোচনা করে মামলার পরবর্তী দিন তারিখ ধার্য্য করেন।
বর্তমান সেই মামলা বিচারাধীন রয়েছেন বিজ্ঞ আদালতে।
উক্ত প্রতিষ্ঠান কর্তৃপক্ষ কর্তৃক আমি দুইটা দোকান শর্তসাপেক্ষ নিয়ে মোদির দোকান প্রতিষ্ঠিত করেছি মাত্র।
এই খুনি পরিবারের ষড়যন্ত্র আবারও শুরু করেছে যা সনামধন্য অনলাইন নিউজ বার্তা বাজার কর্তৃপক্ষের কাছে মিথ্যা অজুহাতে অবৈধ টাকার দাপুটে মিথ্যা রচনা চড়াচ্ছে।
যা কোনদিন ও সুস্থ মনমানসিকতার অধিকারী সমাজের ব্যক্তি মহল মেনে নিবেনা।
সুতরাং সতর্ক করছি ইয়াবা ফরিদ তোমাকে তথা তোমার সন্ত্রাসী লালিত গোষ্ঠীর সকল সদস্যকে।
মিথ্যার আশ্রয় বাদ দিয়ে সত্যায়িত কাগজ নিয়ে মাননীয় আদালতে উপস্থিতি থাকার চেষ্টা চালিয়ে যাও।
হা আমি আত্মসমর্পণ কর্তৃক একজন আলোর দিশারী তাতে কি হয়েছে তোমার হিংসা হয় জ্বালা বাড়ছে নাকি সরিলে।
অবশ্যই প্রতিহিংসা হওয়া স্বাভাবিক তোমার কাছে।কারণ রাষ্ট্র আমাকে সেই সুযোগ টুকুন দিয়েছে যা তোমি গ্রহণ করোনি কারণ তোমার অবৈধ টাকার লোভটাও বেশি।
তোমি কি ভূলে গেছো বিপুল পরিমাণ ইয়াবাসহ ঢাকা গ্রেপ্তার হয়েছো তোমার মা এবং তোমার ভাই ছাত্র পরিচয়দানকারী ইয়াবা গডফাদার রবিউল সহ ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে অনেকদিন কারাভোগ করেছো।
তোমার কি হিসাব আছে কতডজন ইয়াবা মামলার আসামি তোমার পরিবারের সদস্যসহ তোমি।
তোমরা সমসাময়িক অবৈধ টাকার জোরে মিথ্যার আশ্রয় নিয়ে রচনা চড়াচ্ছো।
ইনশাআল্লাহ সত্যের পক্ষ হয়ে যথারীতি ডকুমেন্টস সহকারে মাননীয় আদালতে উপস্থাপন করে তোমাদের অবৈধ টাকার পরাজয় ঘটাবো।
যা টেকনাফ বাসী পরিসমাপ্তি দেখবে সত্যের মৃত্যু নেই।
অতএব মিথ্যা রটনা বাদ দাও তোমার দালিলিক কাগজ পত্র নিয়ে মাননীয় আদালতে হাজির হওয়ার প্রস্তুতি নাও তোমার আমার দেখা হবে বিজ্ঞ আদালতে।

এনামুল হক এনাম।                                     ইউপি সদস্য ৮ নং ওয়ার্ড, টেকনাফ সদর ইউনিয়ন।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Developed By Banglawebs