সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ১১:৪৭ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মিয়ানমারে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বিদ্রোহীরা প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে মোস্তাফিজ ও বাবুল মিয়ানমারের গ্যং স্টারের বাংলাদেশি সহযোগি হোয়াইক্যং এর দালালরা অধরায়! সাড়ে ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা টেকনাফে প্রবেশের অপেক্ষায়! হ্নীলা উম্মে সালমা মহিলা মাদরাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত আরো ৬৪ জন পালিয়ে এলো মিয়ানমার বিজিপি মিয়ানমারের ৫৮ সীমান্তরক্ষী পালিয়ে বিজিবির কাছে আত্মসমর্পণ! জেলা ইসলামী আন্দোলনের সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল আজ হোয়াইক্যং লাতুরীখোলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা ভোট বর্জন করে সরকারকে ‘লাল কার্ড’ দেখিয়েছে জনগণ চরমোনাই পীর
আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি

আন্তর্জাতিক ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি

১ মে) থেকে আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট চলাচলের অনুমতি দিয়েছে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ (বেবিচক)। তবে কোভিড-১৯ সংক্রমণের হার বিবেচনায় ৩৮টি দেশে যাতায়াতের উপর বিশেষ শর্ত আরোপ করা হয়েছে।

৩০ এপ্রিল বেবিচক থেকে জারি করা প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ওই ৩৮টি দেশ থেকে আসা যাত্রীদের ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। এসব দেশ ছাড়া অন্যান্য দেশ থেকে আগত যাত্রীদের পিসিআর ‘নেগেটিভ’ সনদ আনা সাপেক্ষে ১৪ দিন হোম কোয়ারেন্টাইন কঠোরভাবে পালনের জন্য বলা হয়েছে।

ব্যতিক্রম হিসেবে মধ্যপ্রাচ্যের ৩টি দেশ, কাতার, বাহরাইন ও কুয়েত থেকে আসা যাত্রীরা বর্তমানে চলমান ৩ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন ব্যবস্থাপনা অনুসরণ করবেন। এই তিন দেশ থেকে আসা যাত্রীরা পরবর্তীতে স্বাস্থ্য পরীক্ষার ফলাফলের উপর ভিত্তি করে বাকি ১১ দিন হোম কোয়ারেন্টাইন অথবা আইসোলেশনে থাকার জন্য বিবেচিত হবেন।

যে ৩৮ দেশে ফ্লাইট চালুর উপর বিশেষ শর্ত আরোপ করা হয়েছে সেগুলোকে ‘এ’ ও ‘বি’ দুটি গ্রুপে ভাগ করা হয়েছে। ‘গ্রুপ-এ’ -এর দেশগুলো থেকে কেবলমাত্র বাংলাদেশের নাগরিকরা যথাযথ কর্তৃপক্ষের বিশেষ অনুমতি নিয়ে দেশে ফিরতে পারবেন। তবে বাংলাদেশের নাগরিক নন, এমন কেউ এসব দেশ থেকে আসতে পারবেন না।

বাংলাদেশের নাগরিকদের দেশে ফিরে তাদের নিজ খরচে সরকার নির্ধারিত হোটেলে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন সম্পন্ন করতে হবে।

‘গ্রুপ-এ’তে যে ১২টি দেশ রয়েছে সেগুলো হলো : আর্জেন্টিনা, ব্রাজিল, কলম্বিয়া, কোস্টারিকা, সাইপ্রাস, জর্জিয়া, ভারত, ইরান, মঙ্গোলিয়া, ওমান, সাউথ আফ্রিকা এবং তিউনিসিয়া।

গ্রুপ-বি’তে থাকা ২৬টি দেশ হলো : অস্ট্রিয়া, আজারবাইজান, বাহরাইন, বেলজিয়াম, চিলি, ক্রোয়েশিয়া, এস্তোনিয়া, ফ্রান্স, জার্মানি, গ্রিস, হাঙ্গেরি, ইরাক, কুয়েত, ইতালি, লাটভিয়া, লিথুনিয়া, নেদারল্যান্ড, প্যারাগুয়ে, পেরু, কাতার, স্লোভেনিয়া, স্পেন, সুইডেন, সুইজারল্যান্ড, তুরস্ক ও উরুগুয়ে।

এসব দেশ থেকে যে কেউ বাংলাদেশে আসতে পারবেন। তবে ঢাকায় নেমে তাদের নিজ খরচে সরকার নির্ধারিত হোটেলে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন সম্পন্ন করতে হবে।

পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে।

এই ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে আটকে পড়া অভিবাসী যাত্রীগণ নিজ নিজ গন্তব্য বা কর্মস্থলে যাওয়ার সুযোগ পাচ্ছেন।

বাংলাদেশ বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যানের একান্ত সচিব ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মোহাম্মদ সোহেল কামরুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

তবে যেকোনো দেশ থেকে ফেরার পর কোনো ধরনের করোনা উপসর্গ দেখা দিলে সরকারি কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে বা সরকার নির্ধারিত হোটেলে ১৪ দিনের প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইন সম্পন্ন করতে হবে।

দেশে আসার আগে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে সকল যাত্রীদের অবশ্যই আরটি-পিসিআর ল্যাবে করোনা পরীক্ষা করে ‘নেগেটিভ’ সনদ পেতে হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design By Rana