1. banglahost.net@gmail.com : rahad :
  2. teknafnews24@gmail.com : tahernaeem :
চোরাই গাড়ি রেজিস্ট্রেশন মামলায় বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক কারাগারে - Teknaf News24
রবিবার, ২৪ অক্টোবর ২০২১, ০৭:০৪ পূর্বাহ্ন
শিরোনাম :
রোহিঙ্গা দুর্বৃত্তের গুলিতে ৬ রোহিঙ্গা নিহত মণ্ডপে কুরআন রাখার কথা ‘স্বীকার করেছে’ ইকবাল দৈনিক কক্সবাজার ৭১ কার্যালয়ে খতমে কুরআন ও দোয়া মাহফিল অনুষ্টিত রোহিঙ্গা ও আটকে পড়া পাকিস্তানিরা বাংলাদেশের বোঝা: প্রধানমন্ত্রী প্রাথমিক-ইবতেদায়ি সমাপনী পরীক্ষা হচ্ছে না! বাংলাদেশ কোনো ধর্ম ব্যবসায়ী-মৌলবাদীর আস্তানা হতে পারে না- তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী উখিয়ার ৫ ইউনিয়নে ৩৯২ প্রার্থীর মনোনয়ন জমা টেকনাফে প্রধানমন্ত্রীর অনুদানের চেক হস্তান্তর হোয়াইক্যং বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমবায় সমিতির নির্বাচনে হানিফ সভাপতি,মুর্শেদ সম্পাদক নির্বাচিত আইসের চালান ধরা পড়লে টাকা দিতে হয় না মিয়ানমারে

চোরাই গাড়ি রেজিস্ট্রেশন মামলায় বিআরটিএ’র সহকারী পরিচালক কারাগারে

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৩০ নভেম্বর, ২০২০
  • ৩১৮ বার পঠিত

জাল কাগজপত্র দিয়ে নতুন রেজিস্ট্রেশন করে চোরাই গাড়ি রাস্তায় চলাচলের ব্যবস্থা করে দেয়ার মামলায় বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটির (বিআরটিএ) পরিদর্শক আইয়ুব আনসারীকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

উচ্চ আদালতের জামিনের মেয়াদ শেষে সোমবার দুপুরে আইয়ুব আনসারী বরিশাল বিভাগীয় স্পেশাল জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে স্থায়ী জামিনের আবেদন করেন। আদালতের বিচারক মো. মহিসন উল হক আসামির জামিন আবেদন না মঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আইয়ুব আনসারীর আইনজীবী মোখলেচুর রহমান বাচ্চু এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

অভিযুক্ত আইয়ুব আনসারী বরিশাল নগরীর পশ্চিম কাউনিয়া সাধুর বটতলা এলাকার মৃত আতাহার আলী হাওলাদরের ছেলে। আনসারী বর্তমানে ঢাকা বিআরটিএ সদর কার্যালয়ের সহকারী পরিচালকের (ইঞ্জিনিয়ার) অতিরিক্ত দায়িত্বে আছেন।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১১ সালের ২৩ মার্চ মাদারীপুর জেলার মশিউর রহমান ঠাকুরের ভাড়ায় চালিত একটি মাইক্রোবাস (ঢাকা মেট্রো-চ-১৩-৩৫০) মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় থানা এলাকা থেকে চুরি হয়। এ ঘটনায় একই দিন গাড়ির চালক শাহজাদা শিকদার শিবালয় থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন। পরবর্তীতে গাড়ির মালিক মশিউর রহমান ঠাকুর জানতে পারেন একই চেসিস নম্বরে ১টি মাইক্রোবাস বরিশাল বিআরটিএ অফিসের মাধ্যমে নতুন রেজিস্ট্রেশন (বরিশাল ছ-১১-০০৩৯ নম্বর) ব্যবহার করে রাস্তায় চলাচল করছে। এ ঘটনা মশিউর রহমান ঠাকুর বরিশাল এবং ঢাকা বিআরটিএ অফিসে অবহিত করেন। বরিশাল বিআরটিএ অফিস কর্তৃপক্ষ কাগজপত্র যাচাই করে ওই রেজিস্ট্রেশন স্থগিত করে। মশিউর রহমান ঠাকুর বরিশাল বিআরটিএ অফিসে গাড়িটি ফেরত পেতে আবেদন করেন। অফিস কর্তৃপক্ষ কাগজপত্র যাচাই বাছাই করতে চট্টগ্রাম কাস্টম হাউজে প্রেরণ করেন। কাস্টম হাউজের সহকারী কমিশনার কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে কোনো মিল না থাকায় তা বরিশাল বিআরটিএ অফিসকে অবগত করেন।

এর আগে রূপ কুমার বিশ্বাস নামে এক ব্যক্তি বরিশাল নগরীর নতুন বাজার এলাকার ঠিকানা ব্যবহার করে ওই চোরাই মাইক্রোবাসটির মালিক হিসেবে রেজিস্ট্রেশন করার জন্য বিআরটিএ অফিসে আবেদন করেন।

তার আবেদনের প্রেক্ষিতে একই বছর ২৬ সেপ্টেম্বর সহকারী পরিচালক তার অধীনস্ত মোটরযান পরিদর্শক আইয়ুব আনসারীকে কাগজপত্র যাচাই করে প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দেন। কিন্তু আইয়ুব আনসারী নিজ স্বাক্ষরে গ্রাহক রূপ কুমার বিশ্বাসের দাখিলকৃত কাগজপত্র সঠিক ও ত্রুটিমুক্ত উল্লেখ করে সনদ প্রদান করেন। তার সুপারিশের ভিত্তিতে তৎকালিন সহকারী পরিচালক নূরুজ্জামান চোরাই গাড়ির রেজিস্ট্রেশন প্রদান করেন। এ ঘটনায় ২০১৬ সালের ১৯ জুলাই কোতয়ালী মডেল থানায় বরিশাল বিআরটিএ’র তৎকালিন সহকারী পরিচালক (ইঞ্জিনিয়ার) এমডি শাহ আলম রেজিস্ট্রেশন গ্রহণকারী রূপ কুমার বিশ্বাসকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করেন। একই ঘটনায় ২০১৭ সালের ১৮ এপ্রিল দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক এনায়েত হোসেন ঘটনার প্রাথমিক সত্যতা পেয়ে মোটরযান পরিদর্শক আইয়ুব আনসারী ও রূপ কুমার বিশ্বাসকে অভিযুক্ত করে কোতয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা বিআরটিএ’র নির্ধারিত ফরমে আবেদনপত্রের সাথে গ্রাহকের ছবি ও জাতীয় পরিচয়পত্র না নিয়ে ভুয়া ও জাল কাগজপত্র থাকা সত্ত্বেও গাড়ি চোর-ছিনতাইকারীদের সাথে যোগসাজসে অবৈধ লাভবান হতে এবং মূল অপরাধীকে আড়াল করার অপরাধে তৎকালীন মোটরযান পরিদর্শক আইয়ুব আনসারীকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেন। ওই মামলা থেকে রূপ কুমার বিশ্বাসকে অব্যাহতি প্রদানের সুপারিশ করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
ডিজাইন ও কারিগরি সহযোগিতায়: Bangla Webs