Logo
শিরোনাম :
কুরবানীর গুরুত্বপূর্ণ ৪১টি ফাযায়েল ও মাসায়েল: মুফতি আমিমুল ইহসান কুরবানির সাথে আকীকা করা যাবে কি? এবার হজে অংশ নিচ্ছেন ৬০ হাজার মুসল্লি পবিত্র হজ্বের আনুষ্টানিক যাত্রা শুরু: তাওয়াফ পর্ব শেষে মিনায় হাজিরা ফিলিস্তিনিদের আহ্বানে সাড়া দিল বার্সেলোনা, ইসরাইল সফরকে ‘না’ মেসিদের লেবাননে হিজবুল্লাহর কাছে দেড় লাখ ক্ষেপণাস্ত্র, উৎকণ্ঠায় ইসরাইল! আবার লকডাউন দিলে ২ কোটি পরিবারকে মাসে ১০ হাজার টাকা করে দিতে হবে হোয়াইক্যং এর উনছিপ্রাং এলাকা হতে ইয়াবাও বিয়ার উদ্ধারের ঘটনা তদন্তের দাবী এলাকাবাসীর লোক-দেখানো কোরবানি গ্রহণযোগ্য নয় শহরের কলাতলী জামান সী হাইটস রিসোর্ট দ্বন্দ্ব গড়াচ্ছে ঝুঁকির পথে

‘টি-টোয়েন্টিতে ২০-৩০ রানে আউট হওয়া পাপ করার মতো

লক্ষ্য খুব বড় ছিল না। ভালো শুরু পেয়েছিলেন তামিম ইকবাল। কঠিন উইকেটে থিতুও হয়েছিলেন। কিন্তু নিজের ইনিংস বড় করতে পারেননি ফরচুন বরিশালের অধিনায়ক। তাতে নিজেও ডুবলেন, ডোবালেন দলকে। ১৫১ রানের লক্ষ্যে নেমে ১০ রানে তার দল হেরেছে গাজী গ্রুপ চট্টগ্রামের কাছে।

রান তাড়ায় তামিম খেলেছিলেন ৩২ বল, রানও ৩২। ৪৬ মিনিট ক্রিজে থেকে এক চার ও দুটি ছক্কা হাঁকান। দলের দাবি মেটাতে না পারায় তামিম নিজেও হতাশ। দলের পরাজয় অনেকটাই নিজের কাঁধে নিয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার।

তিন অফস্পিনার নাহিদুল ইসলাম, মোসাদ্দেক হোসেন ও সঞ্জিত সাহা বেশ চাপে রেখেছিলেন তামিমকে। তাতে স্ট্রাইক রোটেট করতে সমস্যা হচ্ছিল বাঁহাতির। এজন্য এগিয়ে এসে বারবার প্রতি আক্রমণ করেছেন। তাতে সফল হয়েছেন গুটি কয়েকবার। শেষে ওই পাতা ফাঁদেই পা বাড়িয়ে নিজের উইকেট দিয়েছেন।

মোসাদ্দেককে এগিয়ে এসে উড়াতে গিয়ে লং অফে ক্যাচ দেন তামিম। তার বিদায়ের পর দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৪ রান করেন আফিফ হোসেন। তামিম মনে করেন তার ও আফিফের আরও দায়িত্বশীল হওয়া প্রয়োজন ছিল, ‘আমরা দুইজনই অভিজ্ঞ, আমাদের দায়িত্ব নেওয়া উচিত ছিল। উইকেট ব্যাটিংয়ের জন্য এত ভালো ছিল না। তবুও আমরা সেট হয়েছিলাম। এজন্য আমাদের একজনের শেষ পর্যন্ত থাকা উচিত ছিল।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Developed By Banglawebs