মঙ্গলবার, ১৮ Jun ২০২৪, ০৩:১৬ অপরাহ্ন

টেকনাফের হ্নীলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মার্কেট নির্মাণের অভিযোগ!

টেকনাফের হ্নীলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মার্কেট নির্মাণের অভিযোগ!

ওয়ারিশদের সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করায় মামলা দায়েরের পরও আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ছমি উদ্দিন মার্কেট নির্মাণ অব্যাহত
টেকনাফের হ্নীলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মার্কেট নির্মাণের অভিযোগ!
বার্তা পরিবেশক :
হ্নীলায় ওয়ারিশদের সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করায় মামলা দায়েরের পরও আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ছমি উদ্দিন মার্কেট নির্মাণ অব্যাহত রয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আদালতের নির্দেশনা বাস্তবায়নে এই মার্কেটের নির্মাণ কাজ বন্ধ রাখার নির্দেশনা প্রদান করেছেন।
৮ নভেম্বর দুপুরের দিকেও আদালতের নিষেধাজ্ঞা থাকা সত্ত্বেও বিবাদি গং তোয়াক্কা না করে কাজ করার অভিযোগ তুলে।
জানা গেছে, হ্নীলা ষ্টেশনের মৌজা- দক্ষিণ হ্নীলা, উপজেলা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজার, আর.এস ১২৫৬ নম্বর খতিয়ানের আর.এস ৩৮২৭, ৩৮৯২, ৩৮৯৩ ও ৪৫০০ দাগাদির ৩.৯৭ একর জমি এবং বিরোধীয় মৌজা-দক্ষিণ হ্নীলা, উপজেলা- টেকনাফ, জেলা- কক্সবাজার. আর.এস ১২৫৬ নম্বর খতিয়ানের আর.এস ৩৮২৭ দাগের তুলনামূলক বি.এস ১৮১৪ নম্বর খতিয়ানের বি.এস ৪৩০৮ দাগের আন্দর ০.০৮৩ একর জমির তুলনামূলক দিয়ারা ২৭৩৯ নম্বর খতিয়ানের দিয়ারা ৭৬৯৯ দাগের আন্দর ০.০৮৩ একর জমিতে মূল মালিক ছমি উদ্দিন। ছমি উদ্দিনের মৃত্যুবরণ করলে ৫পুত্র আলিমুদ্দিন, ফজলুল করিম, আলী আহমদ, সোলাইমান, সিকান্দর আলী এবং দুই মেয়ে ছরফুন্নেছা, ছখিনা খাতুন ও স্ত্রী ফয়েজুননেছা ওয়রিশ হন। ছরফুনেছার ওয়ারিশসুত্রে প্রাপ্য ০.০৮৩ একর জমিতে কাজ করছে বিবাদী পক্ষ।
গত ২৯ সেপ্টেম্বর দুপুরের দিকে টেকনাফ মডেল থানার এসআই এস.এম রব বুলবুল এবং এএসআই মতিন ঘটনাস্থল মৌলভী সোলাইমান মার্কেট নির্মাণ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন এবং পরবর্তী আদালতের নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত যাবতীয় কার্য্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশনা প্রদান করেন।
গত ১৬মার্চ ২০২১ইং ছমি উদ্দিনের মেয়ে ছরফুন্নেছার মিরাজী সম্পত্তি প্রাপ্য উদ্ধারে পুত্র মরহুম আলহাজ আল্লামা মোহাম্মদ ইসহাক (শায়খুল হাদিস) ছদর সাহেবের স্ত্রী দিলারা বেগম বাদী হয়ে পৈত্রিক মিরাজি সম্পত্তি বেআইনী বন্টন বিরোধের জেরধরে হ্নীলা পূর্ব সিকদার পাড়ার মৃত মৌলভী সোলাইমানের মেয়ে মোস্তফা বেগম, পুত্র মোহাম্মদ লোকমান, মেয়ে খালেদা বেগম, ছেলে মোহাম্মদ রফিক, মৃত জসিম উদ্দিনের মেয়ে ইরফাত জাহান (তুহিন), ছেলে তারেকুল ইসলাম, মেয়ে সাদিয়া আক্তার,তানজিলা রুপা, হাসিনা বেগম, নুরুল মোস্তফার পুত্র রফিকুল মোস্তফা, আজিজুল মোস্তফা, মেয়ে শাহিদা বেগম, ফারজানা ইয়াছমিন, নাজমা আক্তার, শফিক আহমদের পুত্র শহিদুল ইসলাম, মৃত সিরাজুল মোস্তফার মেয়ে শামসুন্নাহার প্রকাশ বালীসহ উপরোক্তদের বিরুদ্ধে সিনিয়র সহকারী জজ আদালত,টেকনাফ-কক্সবাজারে মামলা দায়ের করেন। এরপর অস্থায়ী নিষেধাজ্ঞা জারীর জন্য অপর মামলা নং- ৫০/২০২১ইং দায়ের করা হলে আদালত দীর্ঘ শুনানীর পর গত ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২১ইং বিবাদীর বিরুদ্ধে অন্তর্বর্তীকালীন নিষেধাজ্ঞার আদেশ জারী করা হয়। মুলত ১৯৮৬সালের এই জমি ছমি উদ্দিন মার্কেট ছিল। অপরাপর ওয়ারিশদের সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করার জন্য ছমি উদ্দিন মার্কেট আজ প্রতারণার মাধ্যমে মৌলভী সোলাইমান মার্কেট নামে নামকরণ করা হয় বলে মামলার বাদীপক্ষ দাবী করেন।
এই বিরোধীয় জমির মার্কেটে আদালতের রায় না আসা পর্যন্ত ক্রয়-বিক্রয়, দোকান ভাড়া, কোন প্রকার চুক্তিপত্র ও বায়নানামা না করার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি অনুরোধ জানানো হয়েছে।
এসআই এস.এম রব বুলবুল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে জানিয়ে বলেন, পরবর্তী নির্দেশনা না আসা পর্যন্ত কার্যক্রম বন্ধ রাখার জন্য বলা হয়। কিন্তু কাজ করছে কিনা তার জানা নেই। কাজ করার সত্যতা পাওয়া গেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design By Rana