মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ০৫:৪১ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
মিয়ানমারে সরকার গঠন করতে যাচ্ছে বিদ্রোহীরা প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ জানিয়েছে মোস্তাফিজ ও বাবুল মিয়ানমারের গ্যং স্টারের বাংলাদেশি সহযোগি হোয়াইক্যং এর দালালরা অধরায়! সাড়ে ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা টেকনাফে প্রবেশের অপেক্ষায়! হ্নীলা উম্মে সালমা মহিলা মাদরাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত আরো ৬৪ জন পালিয়ে এলো মিয়ানমার বিজিপি মিয়ানমারের ৫৮ সীমান্তরক্ষী পালিয়ে বিজিবির কাছে আত্মসমর্পণ! জেলা ইসলামী আন্দোলনের সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল আজ হোয়াইক্যং লাতুরীখোলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা ভোট বর্জন করে সরকারকে ‘লাল কার্ড’ দেখিয়েছে জনগণ চরমোনাই পীর
টেকনাফ মেরিনড্রাইভ সংলগ্ন প্রবাসীর জমি দখলে নিতে ভূমিদস্যুর তান্ডব!

টেকনাফ মেরিনড্রাইভ সংলগ্ন প্রবাসীর জমি দখলে নিতে ভূমিদস্যুর তান্ডব!

টেকনাফ মেরিনড্রাইভ সংলগ্ন প্রবাসীর জমি দখলে নিতে ভূমিদস্যুর তান্ডব: প্রতিকার চেয়ে থানায় অভিযোগ।
নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকার ভূমির প্রকৃত মালিকের স্বত্ব ও অধিকার নিশ্চিতের পাশাপাশি অবৈধ দখল রোধে আইন প্রনয়ন করলে ও টেকনাফের চিহ্নিত ভূমি দস্যুরা কিছুই মানছেনা। সর্বত্র জমির দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় লোলুপ দৃষ্টি পড়েছে এক শ্রেনীর ভূমি দস্যুদের।
তাদের কবলে পড়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছে সৌদি প্রবাসী ও তার অপর শরিকদার।
জানা যায়,
টেকনাফের মেরিনড্রাইভ সংলগ্ন এক সৌদি প্রবাসী ক্রয়কৃত জমিতে দীর্ঘ এক যুগ ধরে শান্তিপূর্ণভাবে ভোগদখল করে আসছিল।
একটি ভূমিদস্যু গ্রুপ সম্প্রতি সময়ে প্রবাসীর ক্রয়কৃত ভোগদখলীয় জমি দখলে নিতে মরিয়া হয়ে উঠেছে। তারই অংশ হিসাবে উক্ত জমি জবর দখল করতে ভূমিদস্যু গ্রুপ পূর্ব পরিকল্পিতভাবে প্রবাসীর জমিতে হামলা, সাইনবোর্ড ও মোটরসাইকেল ভাংচুর করে। এ ঘটনায় টেকনাফ মডেল থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।
থানায় দেয়া অভিযোগে জানা যায়, টেকনাফ সদর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড মহেশখালীয়া পাড়া এলাকা সংলগ্ন টেকনাফ মৌজার বিএস-১৬৭ নং খতিয়ানের সৃজিত বিএস-৪২৫৩ নং খতিয়ানের বিএস-১০০৩৭ নং দাগের তুলনামূলক দিয়ারা-৩৩৪ নং খতিয়ানের সৃজিত দিয়ারা-৫২৬২ নং খতিয়ানের দিয়ারা ১০৪৭৩ নং দাগের আনদর নিম্ন চৌহদ্দি ভুক্ত ৪০ শতক জমি টেকনাফ সদর ইউনিয়নের নাজির পাড়া এলাকার মৃত মোঃ আমিনের পুত্র তৌফিক আহমদ এর নামে বিগত-১৬ আগষ্ট ২০১৭ ইং তারিখে ২০১৯ নং কবলা মুলে ২০ শতক ও ১৮ জুলাই ২০১৮ ইং তারিখে ১৯২৫ নং কবলা মুলে ২০ শতক মোট ৪০ শতক জমি টেকনাফ পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের মৃত মাস্টার আবুল কালামের পুত্র এম কায়সার হামিদ থেকে ক্রয় করেন। ক্রয় সুত্রে উক্ত জমির মালিক হওয়ার পর উক্ত জমি নিজ দখলে নিয়ে উক্ত জমির নিজের নামে নামজারী খতিয়ান সৃজন করে ভোগদখল করে আসছিলেন।

কিন্তু সাবরাং ইউনিয়নের আব্দুস সালামের পুত্র সিদ্দিক আহমদ গং উক্ত জমির উপর কু নজর পড়ে এবং ঐ জমিটি তারা পাবে মর্মে বিভিন্ন ধরনের অজুহাত ও ভয়ভীতি দেখিয়ে জমি দখলের পায়তারা করে আসছিলেন। এর যথাযথ প্রতিকার পেতে জমির দলিল ভূক্ত মালিক তৌকির আহমদ। গত-২৯/ ১২/২০২১ ইং তারিখ কক্সবাজার অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে এমআর মামালা নং ২৪৪২/২০২১ ইং ফৌঃ কাঃ বিঃ ১৪৪ ধারায় সিদ্দিক আহমদ গংকে ২য় পক্ষ দেখিয়ে মামলা রুজু করেন। মহামান্য আদালত উক্ত জমির যথাযথ পর্যালোচনা করে তদন্তপূর্বক মতামত সহ রিপোর্ট দেওয়ার জন্য টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ ও সহকারী কমিশনার ভূমিকে নথি প্রেরণ করেন।

এরই প্রেক্ষিতে ওসি টেকনাফ থানা বাদী বিবাদী উভয় পক্ষকে স্ব স্ব জায়গায় অবস্থান নেওয়ার জন্য নোটিশ প্রেরণ করছে বলে জমির মালিক তৌকির আহমদ জানিয়েছেন।

এই নোটিশ দেওয়ার পরও সিদ্দিক আহমদ গং আত্মীয় স্বজন আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন বলে জমির মালিক তৌকির আহমদ জানিয়েছেন। তিনি গত ১০/০২/২০২২ ইং তারিখ জমির দেখা শোনার দায়িত্বকারী সাবরাং মুন্ডার ডেইল এলাকার মৃত হাজী আবুল কাসেম এর পুত্র আবদুল হক বিকাল অনুমান ৪ঘটিকার সময় মহেশখালীয়া পাড়া মেরিন ড্রাইভ সড়ক দিয়ে যাওয়ার পথে সিদ্দিক আহমদ গং এর অনুসারী মোঃ সেলিম, সিদ্দিক আহমদ, মোঃ আয়ুব, একরামু হক, নুর আলম ও শাহ আলম সহ কয়েজন ব্যাক্তি তার পথ গতিরোধ করে অকথ্য ভাষায় গালমন্দ শুরু করে। আব্দুল হক প্রতিবাদ করলে বিবাদীরা তাদের হাতে থাকা অবৈধ কিরিস দিয়ে তার মাথায় আঘাত করে রক্তাক্ত রখম করে এবং তার হাতে থাকা ২টি মোবাইল ফোন নিয়ে যায়।

এবিষয়ে আবদুল হক বাদী হয়ে মো:সেলিম কে প্রধান আসামী করে টেকনাফ মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দাখিল করে। উক্ত ঘটনায় অনাকাংকিত ঘটনার আশংকা করছে এলাকাবাসী। এ ব্যাপারে পুলিশের উর্ধ্বতন কতৃপক্ষেরর হস্তক্ষেপ প্রয়োজন।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design By Rana