বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ১০:০৭ অপরাহ্ন

পুলিশের বিচ্ছিন্ন কবজি জোড়া লাগানো প্রচারবিমুখ এক চিকিৎসকের গল্প

পুলিশের বিচ্ছিন্ন কবজি জোড়া লাগানো প্রচারবিমুখ এক চিকিৎসকের গল্প

পুলিশ কনষ্টেবল জনি এখন শঙ্কামুক্ত।                জোড়া দেওয়া নার্ভগুলো কাজ করেতে শুরু করেছে

ডেস্ক রিপোর্ট::

চট্টগ্রামের লোহাগড়ায় আসামির দায়ের কোপে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হওয়া কনস্টেবল জনি খানের কবজি জোড়া লাগানো হয়েছে। টানা ১১ ঘণ্টার সফল অস্ত্রোপচারে বিচ্ছিন্ন কবজি জোড়া লাগাতে সক্ষম হয় জাতীয় অর্থোপেডিক হাসপাতাল ও পুনর্বাসন প্রতিষ্ঠানের (নিটোর) হ্যান্ড অ্যান্ড মাইক্রোসার্জারি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ডা. সাজেদুর রেজা ফারুকীর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের চিকিৎসক দল।

জটিল এই অস্ত্রোপচারের পর পুলিশ কনষ্টেবল জনি এখন শঙ্কামুক্ত। তার জোড়া দেওয়া নার্ভগুলো কাজ করেতে শুরু করেছে। হাতে রক্ত চলাচল শুরু হয়েছে। তার হাতের স্বাভাবিক রঙ ও উষ্ণতা ফিরে এসেছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এদিকে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সাতকানিয়া সার্কেল) মো. শিবলী নোমান বলেন, জনি খানের ওপর হামলার ঘটনায় লোহাগাড়া থানায় একটি মামলা হয়েছে।

হামলার সঙ্গে জড়িত কবির আহম্মদের স্ত্রী রুবি বেগমকে বান্দরবান সীমান্ত এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। কবির আহম্মদকে গ্রেপ্তারে পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।

এর আগে রোববার সকালে চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলায় অভিযানে গিয়ে আসামির দায়ের কোপে হাতের কবজি বিচ্ছিন্ন হয় কনস্টেবল জনি খানের। একই ঘটনায় আরও এক কনস্টেবল আহত হন। ঘটনার পর পালিয়ে যান আসামি কবির আহম্মদ।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design By Rana