সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০:৩৪ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
সাড়ে ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা টেকনাফে প্রবেশের অপেক্ষায়! হ্নীলা উম্মে সালমা মহিলা মাদরাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত আরো ৬৪ জন পালিয়ে এলো মিয়ানমার বিজিপি মিয়ানমারের ৫৮ সীমান্তরক্ষী পালিয়ে বিজিবির কাছে আত্মসমর্পণ! জেলা ইসলামী আন্দোলনের সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল আজ হোয়াইক্যং লাতুরীখোলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা ভোট বর্জন করে সরকারকে ‘লাল কার্ড’ দেখিয়েছে জনগণ চরমোনাই পীর এবার স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে পরাজিত হয়েছেন মহাজোটের হেভিওয়েট প্রার্থী হাসানুল হক ইনু হোয়াইক্যং পুলিশ ফাড়ির অভিযান: দেশীয় ৩ অস্ত্র উদ্ধার : আটক-২ শরীয়তপুরে নিজেই ঘুরে ঘুরে পোস্টার ব্যানার টাঙাচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী!
বাংলাদেশ সীমান্তে মিয়ানমারের ভয়ংকর কৌশল

বাংলাদেশ সীমান্তে মিয়ানমারের ভয়ংকর কৌশল

বাংলাদেশের সীমান্তের ১০ কিলোমিটারজুড়ে মোবাইল নেটওয়ার্ক গড়ে তুলেছে মিয়ানমারের জান্তা সরকার। কক্সবাজার ও বান্দরবান সীমান্তে চোরাকারবারিদের সুযোগ করে দিতে ভয়ংকর এই কৌশল নেয়া হয়েছে। এমতাবস্থায় পাল্টা ব্যবস্থা হিসেবে ওই এলাকায় জ্যামার বসানোর পরামর্শ দিয়েছে চোরাচালান নিরোধ বিষয়ক কেন্দ্রীয় টাস্কফোর্স।

জানা গেছে, মিয়ানমার পোস্টস অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশন্স, এমপিটি সিমের বাংলাদেশের অভ্যন্তরে কাভারেজ রয়েছে। এটি বন্ধে নেটওয়ার্ক প্রতিরোধী জ্যামার বসানোর পরামর্শ দেয়া হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়কে তৎপরতা চালাতে বলা হয়।

বিষয়ে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, সীমান্তে জ্যামার বসিয়ে নেটওয়ার্কে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করা আমাদের কাজ নয়। এটি আইন-প্রয়োগকারী সংস্থাগুলো করবে। তবে ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য-প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে সমন্বয় করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ব্যবস্থা নেয়ার তাগিদ দেয়া হয় সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে।

rohingya camp 04 marchরোহিঙ্গা ক্যাম্প, ফাইল ছবি

গত ১১ নভেম্বর জাতীয় রাজস্ব বোর্ড, এনবিআরে ময়মনসিংহ আঞ্চলিক টাস্কফোর্সের অগ্রগতি প্রতিবেদনে বিষয়টি উঠে এসেছে। বিভাগীয় কমিশনার শফিকুর রেজা বিশ্বাসের সই করা ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, বাংলাদেশের মোবাইল নেটওয়ার্ক সীমান্ত এলাকায় নিয়ন্ত্রণ করা হয়। এর বিপরীতে সীমান্ত এলাকায় মোবাইল নেটওয়ার্কের টাওয়ার সংখ্যা বাড়িয়েছে মিয়ানমার।

এর আগে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন, বিটিআরসির ২০১৯ সালের এক পর্যবেক্ষণেও একই চিত্র দেখা গেছে। তাতে বলা হয়েছে, কক্সবাজারে থাকা রোহিঙ্গা শিবিরে মিয়ানমারের মোবাইল নেটওয়ার্ক মিলছে। সেখানে দেশটির একাধিক অপারেটরের সিমকার্ড পর্যন্ত বিক্রি হয়। এতে চোরাকারবারির পাশাপাশি দেশের নিরাপত্তা ঝুঁকি তৈরি করতে পারে।#

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design By Rana