বুধবার, ২৯ মে ২০২৪, ০৮:২৯ অপরাহ্ন

মিথ্যা অপপ্রচারের বিরুদ্ধে নুরুল ইসলাম, জসিম চৌঃ ও জিয়াবুলের সংবাদ সম্মেলন

মিথ্যা অপপ্রচারের বিরুদ্ধে নুরুল ইসলাম, জসিম চৌঃ ও জিয়াবুলের সংবাদ সম্মেলন

মিথ্যা অপপ্রচারের বিরুদ্ধে নুরুল ইসলাম, জসিম চৌঃ ও জিয়াবুলের সংবাদ সম্মেলনঃ                             এই চাদাঁবাজ চক্রের  হাতে এলাকার অনেক নিরীহ খেটে খাওয়া মানুষ নির্যাতনের শিকার

নিজস্বপ্রতিবেদক ::টেকনাফ হোয়াইক্যং এলাকার বাসীন্দা নুরুল ইসলাম বাবুল , জসিম উদ্দীন চৌঃ ও সাংবাদিক জিয়াবুল হক জিয়ার বিরুদ্ধে বিভিন্ন নিউজ পোর্টাল ও ফেইসবুক সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা অপপ্রচার চালানোর প্রতিবাদে
সংবাদ সম্মেলন করে প্রতিবাদ ও উল্লেখিত সংবাদের বিবরণ তুলে ধরেছেন।

প্রতিবাদে বাবুল বলেন, গত কয়েদিন আগে স্থানীয় মৃত আবুল কাশেমের পুত্র ইয়াবা ব্যাবসায়ী হেলাল উদ্দীন (৩৯) একয় এলাকার শামসু প্রকাশ মাইয়ালি শামসু কে ধরে নিয়ে নির্যাতন করে এবং বড় অংকের চাদা দাবি করে । পরে শামসুর পরিবার বাবুল ও গন্যমান্য ব্যাক্তির কাছে এসে তাহা অবগত করলে বাবুল নিজে গিয়ে হেলাল উদ্দীন কে জিজ্ঞেস করে, কেন শামসু কে নির্যাতন করতেছ এইটা জিজ্ঞেস করতে না করতে উল্টো আমাকে হুমকি ধমকি সহ ইয়াবা ব্যবসায়ী বলে হেনাস্তা করে। তবে প্রকাশ্যে আমার সাথে বড় ধরনের তাৎক্ষাণিক সংঘর্ষে জড়াবে দেখে আমি বাড়িতে চলে আসি। পরে দেখি একটি অনলাইন ভিত্তিক নিউজে ইয়াবা ব্যাবসায়ী হেলাল সাংবাদিকদের মিথ্যা তথ্য দিয়ে বাবুল, জসিম ও জিয়াবুলের বিরুদ্ধে ভিডিও বার্তা দেন যাহা সম্পূর্ণ বানোয়াট ও বিত্তহীন এবং শাক দিয়ে মাছ ঢকার মতন একটি ঘটনা। যাহা আমাদের দৃষ্টি গোচর হয়েছে। আমরা প্রকাশ্যে চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলতে পারি যে এ ধরনের অনৈতিক কাজে অথবা মাদক সংক্রান্ত বিষয়ে কোনদিন জড়িত ছিলাম না । উক্ত সংবাদটি সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন ও উদ্দেশ্যপ্রণোদিত । তাই প্রশাসনিক কর্মকর্তা সহ জনসাধারণের বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য জানাচ্ছি । কিন্তুু আমারা হলফ করে বলতে পারব যে সে এক জন মাদক কারবারি,নারী নির্যাতন কারী ও চাঁদাবাজ তাহার হাতে এলাকার অনেক নিরীহ খেটে খাওয়া মানুষ নির্যাতনের শিকার হয়েছে এবং অনেক কে গুম করে ফেলেছে যার মধ্যে জামাল নামের ছেলেটি এখন ও নিখোঁজ বলে দাবি করেন সংবাদ সম্মেলনে জামালের গর্ভধারিণী মা।

প্রতিবাদ কারি
নুরুল ইসলাম বাবুল , জসিম উদ্দীন চৌঃ ও সাংবাদিক জিয়াবু হক জিয়া।
হোয়াইক্যং, টেকনাফ, কক্সবাজার।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design By Rana