Logo
শিরোনাম :

সেন্টমার্টিনে ভ্রমণ সীমিত করায় জীবিকা হারাবে তিন লাখ মানুষ

?????

বিশ্বখ্যাত প্রবাল দ্বীপ সেন্টমার্টিনে পর্যটক সীমিতকরণ, রাত্রিযাপন নিষিদ্ধকরণের সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হলে জীবিকা হারা হবে স্থানীয় বাসিন্দাসহ অন্তত তিন লাখ মানুষ। দ্বীপের মানুষগুলো পুরনো পেশায় ফিরতে গিয়ে বাড়বে অপরাধপ্রবণতা। কর্মসংস্থান হারাবে পর্যটন শিল্পে নিয়োজিত লক্ষাধিক কর্মকর্তা-কর্মচারী। ঝুঁকিতে পড়বে বিভিন্ন উদ্যোক্তাদের হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ।

এসকল আশঙ্কা প্রকাশ করে জনবিরোধী এমন সিদ্ধান্ত প্রত্যাহারের দাবি জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করে সংবাদ সম্মেলন করেছে ট্যুর অপারেটর অ্যাসোসিয়েশন অব কক্সবাজার-টুয়াক।

শুক্রবার বেলা ১১টায় আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে লিখিত ১২ দফা দাবি উপস্থাপন করেন টুয়াকের সভাপতি তোফায়েল আহম্মেদ। এতে সেন্টমার্টিন দ্বীপে প্লাস্টিক পণ্য ব্যবহার সর্ম্পূন বন্ধ করা, দ্বীপের ভাঙনরোধে মূল ভূখন্ডের ৫০০ মিটার দূরে আধুনিক জেটি নির্মাণ, দ্বীপে সৌর বিদ্যুতের ব্যবহার বাধ্যতামূলক করে জেনারেটর ব্যবহার নিষিদ্ধ করাসহ ১২টি দাবি উপস্থাপন করা হয়।

এসময় ট্যুর অপারেটর নেতারা বলেন, মূলত কক্সবাজারের পর্যটন ব্যবসাকে পরিকল্পিতভাবে ধ্বংস করার জন্য একটি জাতীয় আন্তর্জাতিক চক্র সেন্টমার্টিনে পর্যটন সীমিতকরণের নামে পুরো কক্সবাজারকে অন্ধকারে ঠেলে দিচ্ছে। কক্সবাজারে সবকিছু দখল করার যে অসম প্রতিযোগিতা সৃষ্টি হয়েছে, তারই অংশ হিসেবে ধীরে ধীরে সবকিছুতে নিয়ন্ত্রণে নিচ্ছে চক্রটি। তাই আপামোর কক্সবাজারের মানুষকে পর্যটন শিল্প বাঁচাতে এগিয়ে আসার আহবান জানান তারা।

এতে সূচনা বক্তব্যসহ সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন টুয়াকের প্রধান উপদেষ্টা ও জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক মুফিজুর রহমান।

বক্তব্য রাখেন- টুয়াকের সিনিয়র সহসভাপতি আনোয়ার কামাল, সহসভাপতি হোসাইন ইসলাম বাহাদুর, সাধারণ সম্পাদক আসাফ উদ দৌলা আশেক, সাংগঠনিক সম্পাদক ফারুক আজম, যুগ্ম সম্পাদক আল আমীন বিশ্বাস, এসএ কাজল, পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক সম্পাদক তোহা ইসলাম, শহিদুল্লাহ নাঈম, মোহাম্মদ ইউছুপ, মোহাম্মদ শিবলি সাদেক, মুহাম্মদ মুসা, জিল্লুর রহমান চৌধুরী, আবদুস সাত্তার, সাইফুল আলম, সাইম রহমান অভি।

সেন্টমার্টিন দ্বীপে পর্যটন শিল্প বিকশিত হওয়ার পূর্বের অবস্থায় গিয়ে সমুদ্র হতে মাছ আহরণ, প্রবাল উত্তোলন, প্রবাল পাথরকে নির্মাণ কাজে ব্যবহার, মাছের অভয়ারণ্য ধ্বংস, শামুক-ঝিনুক সংগ্রহ করে নানা উপায়ে জীবিকা নির্বাহ করবে। এতে দ্বীপের পরিবেশ মারাত্মক হুমকির সম্মুখীন হবে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Developed By Banglawebs