Logo

স্কুল-কলেজ খুলছে ৩০ মার্চ

করোনা মহামারিতে এক বছর ধরে বন্ধ থাকা স্কুল-কলেজ আগামী ৩০ মার্চ খুলছে। তবে, এখনি খুলছে না প্রাক-প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলো।

শনিবার সন্ধ্যায় সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের মন্ত্রিপরিষদ কক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন শিক্ষামন্ত্রী ড. দীপু মনি।

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, ‘প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক পর্যায়ের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আগামী মার্চ মাসের ৩০ তারিখ খুলে দেব। হয়ত পর্যায়ক্রমে, একদম প্রথমে প্রাথমিকে যারা পঞ্চম শ্রেণি পর্যন্ত, তারা হয়ত প্রতিদিনই আসবেন এবং মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিকে দশম ও দ্বাদশ প্রতিদিন আনব। বাকিগুলো হয়ত প্রথমে সপ্তাহে একদিন আসবে, তারপর থেকে সপ্তাহে দুইদিন করে আসবে। তারপর পর্যায়ক্রমে আমরা স্বাভাবিকের দিকে নিয়ে যাব।’

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, পঞ্চম শ্রেণি পাঁচ দিন আসবে। আর দশম ও দ্বাদশ শ্রেণিকে সপ্তাহে ছয় দিন ক্লাসে আনার চেষ্টা হবে। তবে, প্রাক-প্রাথমিক পর্যায়ে বিদ্যালয় খুলে দেয়ার বিষয়ে স্কুল-কলেজ খোলার পর সিদ্ধান্ত নেয়া হবে বলে জানান মন্ত্রী।

পরীক্ষা নেয়ার বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আমরা এসএসসির জন্য ৬০ কর্মদিবস এবং এইচএসসির জন্য ৮০ কর্মদিবসের একটি সিলেবাস প্রণয়ন করেছি। এসএসসি শিক্ষার্থীদের ৬০ কর্মদিবস এবং এইচএসসি শিক্ষার্থীদের ৮০ কর্মদিবস ক্লাস করিয়ে আমরা পরীক্ষা নেব।’

স্কুল-কলেজ খোলার আগে এই সময়ের মধ্যে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার সকল প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে উল্লেখ করে ৩০ মার্চের আগেই শিক্ষক-কর্মচারীদের করোনা টিকা দেয়া শেষ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন দীপু মনি। ‘এছাড়া কোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মেরামতের প্রয়োজন হলে সেটিও ৩০ মার্চের মধ্যে সম্পন্ন করা হবে’-যোগ করেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী আরও জানান, দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় এবছর রোজাতেও ক্লাস চলবে। শুধু ঈদের সময় কয়েকদিন ছুটি থাকবে।

বৈঠকে আরও অংশ নেন- মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম, জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মোস্তাফা কামাল উদ্দীন, মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের সচিব মো. মাহবুব হোসেন, স্বাস্থ্য সচিব মো. আবদুল মান্নান, কারিগরি ও মাদ্রাসা শিক্ষা বিভাগের সচিব মো. আমিনুল ইসলাম খান, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মো. কামাল হোসেন, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলমসহ সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

এদিকে, গত ২২ ফেব্রুয়ারি শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণা অনুযায়ী আগামী ২৪ মে থেকে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর পাঠদান কার্যক্রম শুরু হবে। আর আবাসিক হল খুলবে ১৭ মে।

দেশে গত বছরের ৮ মার্চ প্রথম করোনা রোগী শনাক্তের পর ১৭ মার্চ থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। এরপর দফায় দফায় বেড়েছে ছুটির মেয়াদ।

প্রধানমন্ত্রী গত ২২ ফেব্রুয়ারি মন্ত্রিসভা বৈঠকে স্কুল-কলেজ খুলতে পর্যালোচনা করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন। করোনার প্রকোপ কমে যাওয়ায় কবে থেকে স্কুল-কলেজ খুলবে তা পর্যালোচনার নির্দেশ দিয়েছিলেন তিনি। সেই নির্দেশেই আজ সভায় ৩০ মার্চ স্কুল-কলেজ খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Developed By Banglawebs