Logo
শিরোনাম :
জালিয়া পাড়ায় নিজ তহবিল থেকে ঈদ উপহার দিলেন পৌর সম্ভাব্য মেয়র পদপ্রার্থী আব্দুস শুক্কুর সিআইপি হোয়াইক্যংয়ের উনছিপ্রাংএ ভিটেবাড়ির সীমানা নিয়ে সংঘর্ষ : ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী দিয়ে ৮জনকে কুপিয়ে মারাত্বক জখম! শবে কদর কি? তা নিয়ে জরুরি কিছু কথা কোরআন আমাদের পার্থিব শান্তির পাশাপাশি আখিরাতে মুক্তির পথ দেখায় আল-আকসায় ইসরাইলি হামলার নিন্দা জানিয়েছে যেসব দেশ পুলিশের এপিসিতে আগুন দেওয়ার মূলহোতা গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেফতার টেকনাফের কলেজ ছাত্র তৌকিরের বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবি টেকনাফে করোনাকালিন সময়ে ১হাজার গরীব পরিবারকে চাল বিতরণ করে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন হাফেজ এনামুল হাসান প্রকাশিত সংবাদের প্রতিবাদ ও জলিলের ব্যাখ্যা মাওলানা মামুনুল হককে আদালতে তোলা হবে আজ, নিরাপত্তা জোরদার

হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে রোমাাঞ্চকর জয় রাজস্থানের

দুই তরুণের কাঁধে ভর করে সানরাইজার্স হায়দরাবাদের বিরুদ্ধে জয় ছিনিয়ে নিল রাজস্থান রয়্যালস। রাহুল তেওটিয়া ও রিয়ান পরাগের ব্যাটে চার ম্যাচ পর জয়ে ফিরল রয়্যালস বাহিনী। ১৫৯ রান তাড়া করতে নেমে পাঁচ উইকেট ম্যাচ জিতে নেয় রাজস্থান। প্রথম দু’টি ম্যাচ জিতলেও পরের টানা চারটি ম্যাচে হারের পর ফের জয়ে ফিরলে স্টিভেন স্মিথসাঞ্জু স্যামসনরা।

রান তাড়া করতে নেমে ৭৮ রানে পাঁচ উইকেট হারানোর পর ম্যাচের জয়ের আশা ছেড়ে দিয়েছিল রাজস্থান৷। কিন্তু পঞ্চম উইকেটে তেওটিয়া ও পরাগের অবিভক্ত ৮৫ রানের পার্টনারশিপে এক বল বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতে নেয় রয়্যালস। কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের পর ফের ব্যাট হাতে দলকে জেতালেন স্পিনার তেওটিয়া। এদিন ২৮ বলে চারটি বাউন্ডারি ও দু’টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৪৫ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে দলকে জেতান তিনি। তেওটিয়াকে সঙ্গ দেন পরাগ। ২৬ বলে ৪২ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন তিনি।

এর আগে রান তাড়া করতে নেমে প্রথম পাঁচ ওভারের মধ্যে রাজস্থান রয়্যালসের তিন ব্যাটসম্যান ডাগ-আউটে ফেরেন। এদিন প্রথম ম্যাচ খেলতে নামেন বেন স্টোকস৷ তাঁকে দিয়ে এদিন ওপেন করান রয়্যালস ক্যাপ্টেন। কিন্তু ব্যাট হাতে দাগ কাটতে ব্যর্থ স্টোকস। মাত্র ৫ রানে স্টোকসের স্টাম্প ছিটকে দেন খলিল আহমেদ। এরপর ক্যাপ্টেন স্টিভ স্মিথ ও জেস বাটলার ডাগ-আউটে ফেরেন।

দ্রুত তিন উইকেট হারানোর পর সঞ্জু স্যা্মসন ও রবীন উথাপ্পা রয়্যালস ইনিংস এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন। কিন্তু দু’জনেই দলকে ১০০ রানেও পৌঁছতে পারেননি। স্যামসন ২৬ ও উথাপ্পা ১৮ রান করে ডাগ-আউটে ফিরে যান। ৭৮ রানে পাঁচ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা রয়্যালস ইনিংসকে টেনে তোলার চেষ্টা করেন তেওটিয়া ও পরাগ। পঞ্চম উইকেটে এই দু’জনের দুরন্ত পার্টনারশিপে অপ্রত্যাশিত জয় পায় রাজস্থান। রশিদ খানের দুরন্ত বোলিংয়েও দুর্দান্ত জয় ছিনিয়ে নেয় রয়্যালস।

এর আগে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। আগের ম্যাচে দুই ওপেনারের ব্যাটে বড় ইনিংস গড়া সানরাইজার্সের এদিন শুরুটা অবশ্য ভালো হয়নি। ব্যক্তিগত ১৬ রানে আউট হন জনি বেয়ারস্টো। এরপর ডেভিড ওয়ার্নার ও মনীশ পান্ডের ব্যাটে চার উইকেটে ১৫৮ রান তুলেছিল হায়দরাবাদ। ওয়ার্নার ৩৮ বলে ৪৮ ও মনীশ ৪৪ বলে ৫৪ রানের ইনিংস খেলেন। তবে দলকে জিতিয়ে ম্যাচ সেরা হন রাহুল তেওটিয়া।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Developed By Banglawebs