সোমবার, ২৪ Jun ২০২৪, ০৬:৪৪ পূর্বাহ্ন

হােয়াইক্যং ইউপির লম্বাবিলের মীর কাশেম আহত অবস্থায় গ্রেফতার: মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার

হােয়াইক্যং ইউপির লম্বাবিলের মীর কাশেম আহত অবস্থায় গ্রেফতার: মাদক ও অস্ত্র উদ্ধার

হােয়াইক্যং ইউপির লম্বাবিলে র‍্যাবের সাথে গােলাগুলিতে  অস্ত্রধারী ও মাদক কারবারী মীর কাশেম আহত অবস্থায় গ্রেফতার

ডেস্ক রিপোর্ট::

কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন হােয়াইক্যং ইউনিয়নস্থ লম্বাবিল ঘােনারপাড়া এলাকায় অভিযান পরিচালনাকালে র‍্যাবের সাথে গােলাগুলিতে একজন অস্ত্রধারী মাদক কারবারী আহত অবস্থায় গ্রেফতারসহ ০১ টি দেশীয় অস্ত্র , ০২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও ১০,০০০ পিস ইয়াবা উদ্ধার

র‍্যাব-১৫,কক্সবাজার , গােপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে , কতিপয় মাদক কারবারী কক্সবাজার জেলার টেকনাফ থানাধীন হােয়াইক্যং ইউপিস্থ ঘােনারপাড়ার মৃত কবির আহম্মদ এর বাড়ি সংলগ্ন লম্বাবিল – ঘুনারপাড়াগামী রাস্তার কালবার্টের উপর মাদকদ্রব্য ইয়াবা ট্যাবলেট ক্রয় – বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে অবস্থান করছে।

র‍্যাব-১৫,র সহকারী পুলিশ সুপার সিনিঃ সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ মােহাম্মদ শেখ সাদী জানান, উক্ত সংবাদের ভিত্তিতে র‍্যাব -১৫ , কক্সবাজার এর একটি চৌকশ আভিযানিক দল ০৭/০৮/২০২১ খ্রিঃ আনুমানিক ১২.৫০ ঘটিকায় উপরােক্ত স্থানে পৌছালে র্যাবের আভিযানিক দলের উপস্থিতি টের পেয়ে ০৩/০৪ জন সংঘবদ্ধ অস্ত্রধারী মাদক কারবারীরা র্যাব সদস্যদের লক্ষ করে গুলিবর্ষণ শুরু করে ।

তখন উক্ত আভিযানিক দলের সদস্যগন সরকারী সম্পত্তি এবং তাদের জানমালের আত্মরক্ষার লক্ষ্যে পাল্টা গুলি করলে ০২/০৩ জন অজ্ঞাতনামা অস্ত্রধারী সন্ত্রাসী গুলি ছুড়তে ছুড়তে দৌড়ে পালিয়ে যায় ।

পরবর্তীতে ঘটনাস্থল হতে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় আসামী মীর কাশেম ( ২৫ ) , পিতা- হাজী মােহাম্মদ হােসেন , সাং- লম্বাবিল , ঘােনারপাড়া , ওয়ার্ড নং -০৩ , ইউপি- হােয়াইক্যং , থানা- টেকনাফ , জেলা- কক্সবাজারকে ধৃত করে ।

এরপর র্যাব সদস্যরা গুলিবিদ্ধ মাদক কারবারীকে কালবিলম্ব না করে অতিদ্রুত চিকিৎসার জন্য উখিয়া এমএসএফ হাসাপাতালে নিয়ে যায় ।

পরবর্তীতে কর্তব্যরত চিকিৎসকের পরামর্শে উন্নত চিকিৎসার জন্য র্যাব তার নিজ ব্যবস্থাপনায় এবং নিজ খরচে উক্ত গুলিবিদ্ধ অস্ত্রধারী মাদক কারবারীকে কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণের ব্যবস্থা করেছে ।

পরবর্তীতে উপস্থিত স্বাক্ষীদের সম্মুখে গুলিবিদ্ধ আহত আসামীর আশেপাশে ছড়ানাে ছিটানাে অবস্থায় ০১ টি দেশীয় অস্ত্র , ০২ রাউন্ড তাজা কার্তুজ এবং ১০,০০০ ( দশ হাজার ) পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয় ।

আসামীর বিরুদ্ধে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

এদিকে লম্বাবিল এর ঘোনাপাড়া তথা চিত্তবাবু কাছারি সংলগ্ন এলাকায় একটি শক্তিশালী সিন্ডিকেট দীর্ঘদিন থেকে সক্রিয় রয়েছে তারা প্রতিনিয়ত উক্ত সীমান্ত পয়েন্ট দিয়ে প্রতিনিয়ত মাদক খালাস করে বলে জানা যায়। তাদের সাথে কিছু রোহিঙ্গাদের সখ্যতা রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বিষয়টি তদন্ত করলে মাদকের গডফাদারদের মুখোশ উন্মোচিত হবে। এলাকাবাসীর দাবি, এই মাদকের গডফাদারদের ও আইনের আওতায় আনা হোক।

সূত্র: র‍্যাব-১৫

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design By Rana