সোমবার, ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৯:১৮ পূর্বাহ্ন

শিরোনাম :
সাড়ে ৪ লাখের বেশি রোহিঙ্গা টেকনাফে প্রবেশের অপেক্ষায়! হ্নীলা উম্মে সালমা মহিলা মাদরাসায় আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালিত আরো ৬৪ জন পালিয়ে এলো মিয়ানমার বিজিপি মিয়ানমারের ৫৮ সীমান্তরক্ষী পালিয়ে বিজিবির কাছে আত্মসমর্পণ! জেলা ইসলামী আন্দোলনের সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল আজ হোয়াইক্যং লাতুরীখোলায় আদালতের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে জমি দখলের চেষ্টা ভোট বর্জন করে সরকারকে ‘লাল কার্ড’ দেখিয়েছে জনগণ চরমোনাই পীর এবার স্বতন্ত্র প্রার্থীর কাছে পরাজিত হয়েছেন মহাজোটের হেভিওয়েট প্রার্থী হাসানুল হক ইনু হোয়াইক্যং পুলিশ ফাড়ির অভিযান: দেশীয় ৩ অস্ত্র উদ্ধার : আটক-২ শরীয়তপুরে নিজেই ঘুরে ঘুরে পোস্টার ব্যানার টাঙাচ্ছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী!
দেশে রেকর্ড সংখ্যক ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

দেশে রেকর্ড সংখ্যক ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত

দেশের ডেঙ্গু পরিস্থিতি চলতি মাসে ক্রমেই খারাপের দিকে যাচ্ছে। প্রায় প্রতিদিনই নতুন নতুন রেকর্ড গড়ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় রেকর্ড ৩৮৯ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে। তবে এ সময় কোনো মৃত্যুর খবর পাওয়া যায়নি।

বুধবার (সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমারজেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের প্রতিবেদনে এ চিত্র পাওয়া গেছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে আজ বুধবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে ৩৮৯ জন। যা এ বছরে এক দিনে সর্বোচ্চ শনাক্ত। তাদের মধ্যে ঢাকায় ২৬৪ জন ও বাইরে ১২৫ জন। যেখানে আগের দিন শনাক্ত হয়েছিল ৩৫৩ জন রোগী। তাদের মধ্যে ঢাকায় ২৩৮ জন এবং বাইরে ছিল ১১৫ জন।

বর্তমানে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ১ হাজার ২৫১ জন ডেঙ্গু রোগী। তাদের মধ্যে রাজধানীর ৫০টি সরকারি-বেসরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছে ৯২৯ জন এবং বাইরে ৩২২ জন।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, জুলাই মাসের ৩১ দিনে মোট রোগী শনাক্ত হয়েছিল ১ হাজার ৫৭১ জন। আর আগস্টের ৩১ দিনে মোট রোগী ৩ হাজার ৫৩১ জন শনাক্ত হয়। আর চলতি মাসের ১৪ দিনে শনাক্ত ও ভর্তি হয়েছে ৩ হাজার ৬৫৬ জন। চলতি মাসের ১৪ দিনে মোট ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। যা গত আগস্টের চেয়ে অনেক বেশি। জুনে মৃত্যু হয়েছিল একজনের, জুলাইতে ৯ জন মিলে ডেঙ্গুতে এ পর্যন্ত মোট ৩৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে আজ ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে ৯ হাজার ৮৩৭ জন। তাদের মধ্যে সুস্থ হয়ে ছাড়পত্র নিয়েছে ৮ হাজার ৫৪৭ জন। ঢাকায় ভর্তি হয়েছিল ৭ হাজার ৮০১ জন এবং ছাড়পত্র নিয়েছে ৬ হাজার ৮৫৫ জন। ঢাকার বাইরে মোট রোগী শনাক্ত হয়েছে ২ হাজার ৩৬ জন। তাদের মধ্যে ছাড়পত্র নিয়েছে ১ হাজার ৬৯২ জন।

আগস্ট-সেপ্টেম্বরে ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব সর্বোচ্চ চূড়ায় উঠবে বলে কীটতত্ত্ববিদেরা সতর্ক করে আসছিলেন। যেখানে চলতি মাসে প্রতিদিন গড়ে প্রায় ২৬১ জন রোগী শনাক্ত হচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *




এই ওয়েবসাইটের লেখা ও ছবি অনুমতি ছাড়া কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি।
Design By Rana