Logo

মোদির লজ্জা থাকলে বাংলাদেশে আসবে না : মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম

ইসলাম ও মুসলমানদের বিরুদ্ধে প্রকাশ্যে অবস্থান নেয়া ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির লজ্জা থাকলে তিনি বাংলাদেশে আসবেন না বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি সৈয়দ ফয়জুল করীম শায়েখে চরমোনাই।

গতকাল বিকেলে চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গা উপজেলা পাইকপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নূরে মদীনা জাহানারা বেগম মহিলা মাদরাসা আয়োজিত বিশাল ইসলামী সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এছাড়াও ভারতের উচ্চ আদালতে পবিত্র কুরআনের ২৬টি আয়াত বাতিলের রিট গ্রহণ করায় গভীর উদ্বেগ ও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের সিনিয়র নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে আসলে ইসলাম ও মানবতার এই দুশমন মোদিকে সীমান্তে হত্যাকারীদের কঙ্কাল উপহার দেয়া উচিত। যে দেশের সরকার মুসলমানদের নাগরিক অধিকার হরণ করে ভারত থেকে বিতাড়িত করতে চায়, সেই ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেদ্র মোদিকে নব্বই ভাগ মুসলমানের বাংলাদেশে আসবে কোন মুখে?

তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদি মুসলমানদের বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে। ভরা মওসুমে পানি ছেড়ে দেয়, পানির প্রয়োজনে তা বন্ধ করে দেয়, পেয়াঁজের সঙ্কট হলে রপ্তানি বন্ধ করে ভরা মওসুমে পেয়াঁজ দেয়। মোদির লজ্জা থাকলে বাংলাদেশ সফরে আসবে না।

তিনি বলেন, নরেন্দ্র মোদি ভারতের শিয়া ওয়াক্ফ বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াসিম রেজভীকে দিয়ে পবিত্র কুরআনের ২৬টি আয়াত বাতিলের রিট করিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, ২৬টি আয়াত কেন? কুরআনের একটি আয়াত কিংবা আয়াতের অংশকে বাদ দেয়ার শক্তি বিশ্বের কোন মানুষ কিংবা আদালত রাখে না। একটি আয়াতের অংশকেও অস্বীকার করলে বেঈমান হয়ে যাবে।

মুফতী ফয়জুল করীম বলেন, ভারত মুসলমানদের সাথে খেলা শুরু করেছে কখনো মসজিদ ভেঙ্গে, কখনো সীমান্তে বাংলাদেশী নাগরিক হত্যা করে, কখনো পানি বন্ধ করে দিয়ে, কখনো গরুর গোশত খাওয়ার অপরাধে মুসলিম হত্যা করে। ইসলাম ও কুরআনের এই দুশমনকে বাংলাদেশের মানুষ বরণ করতে পারে না।

মাওলানা ইউনুছ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে শহরের বরেণ্য ওলামায়ে কেরাম বক্তব্য রাখেন।

মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম বলেন, বিশ্বের সকল পরাশক্তি ইসলাম, কুরআন ও মুসলমান ধ্বংসে উঠেপড়ে লেগেছে। শিয়া সম্প্রদায়ের কতিপয় লোকেরাও ইসলাম ধ্বংসে মাঠে নেমেছে। সেই ধারাবাহিকতায় ভারতের শিয়া ওয়াক্ফ বোর্ডের সাবেক চেয়ারম্যান ওয়াসিম রেজভী কুরআনের ২৬টি আয়াত বাতিলে রিট করেছে। অবিলম্বে কুরআনের দুশমন ওয়াসিম রিজভীকে গ্রেফতার করে কঠোর শাস্তি দিতে হবে।

তিনি বলেন, পবিত্র কুরআন শরীফের ২৬টি আয়াতের ওপর আপত্তি তুলে তা পরিবর্তনের আবেদন, ভারতের সুপ্রিমকোর্টে তা গ্রহণ, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের জিহাদবিরোধী ঔদ্ধত্যপূর্ণ বক্তব্য, দেশে ‘আড়ং’সহ বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে দাড়ি-টুপি ও হিজাবের বিরুদ্ধে অবস্থান এবং সারা দেশে মসজিদ-মাদরাসার বিরুদ্ধে গভীর ষড়যন্ত্রের কারণে এ দেশের মুসলিম জনতার হৃদয়ে রক্তক্ষরণ হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


Developed By Banglawebs